শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪, আষাঢ় ২৯ ১৪৩১

পৃথিবীতে বিবেক বলে যেন আর কিছু নেই

পি. আর. প্ল্যাসিড

প্রকাশিত: ১০:০০, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২

পৃথিবীতে বিবেক বলে যেন আর কিছু নেই

পি. আর. প্ল্যাসিড

বিশ্ববাসী এখন মানবতার কথা আর বলছে বলে মনে হয় না। বললেও তা যেন অল্প সংখ্যক মানুষের মুখে মুখে। মুখে তারা যতো বলছে মানবতার কথা বাস্তবে তার চেয়ে বেশি যেন কাজ করছে মানবতার বিপরীতে। অর্থাৎ বিশ্বের শক্তিধর দেশ গুলো এখন মানবতা বিরুধী কাজে লিপ্ত হচ্ছে অনেক বেশি। তার মানে যুদ্ধে জড়াচ্ছে অনেকটাই অপ্রত্যাশিত গতিতে। কোনো কোনো দেশ আবার তার পক্ষপাতিত্ব করছে নানাভাবে। কেউ কেউ বর্তমান এই পরিস্থিতিবে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের দিকে অগ্রসর হবার মতোই বলছে। যুদ্ধের ঘটনায় মারা যাচ্ছে সাধারণ নিরীহ মানুষ। এদের জন্য দুঃখ প্রকাশ করারও যেন কাউকে দেখা যাচ্ছে না আর প্রকাশ্যে।

যারা এতোদিন বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠার কথা বলেছে তাদের সবার মধ্যেই যুদ্ধাংদেহী ভাব প্রকাশ পাচ্ছে প্রতিনিয়ত। কেউ কাউকে তোয়াক্কা করছে না আর। আমরা এতোদিন বলে এসেছি, "নো মোর ওয়ার, নো মোর হিরোশিমা, উই নিড পিস"। মানে, "আমরা আর যুদ্ধ চাই না, আমরা হিরোশিমার অবস্থায় নতুন করে আর কোনো দেশকে দেখতে চাই না, আমরা চাই শান্তি"।

ক্রমেই দেখছি এই শ্লোগান দেবার মতো লোকের অভাব হচ্ছে। সারা পৃথিবীতে এখন যেভাবে যুদ্ধ যুদ্ধভাব শুরু হয়েছে এটা বাস্তবে রূপ নিলে শান্ত পৃথিবী যে শুধু অশান্ত হবে তা কিন্তু নয়। অনেকাংশে পৃথিবী ধ্বংসও হতে পারে। সুতরাং আমরা এমন কিছু ঘটুক যাতে মানবতার অকল্যাণ ঘটে কিংবা মানব সভ্যতার পরিনতি হয় ভয়াবহ। পরম করুণাময়ের কাছে প্রার্থণা করছি, আমাদের পৃথিবী যেন সেই অবস্থার মুখোমুখি না হয়।

সংবাদ মাধ্যমে একটা সংবাদ দেখেছি। রাশিয়া জাপানের কূটনীতিককে চোখ বেঁধে নিয়ে গিয়ে নির্যাতন করেছে যা মোটেও কাঙ্খিত নয় বা শুভনীয় বলে মনে করি না। এমন ঘটনার তীব্র নিন্দা করছি। বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশগুলো যা করছে তা মেনে নেওয়া যায় না। এসবের তীব্র নিন্দা করা সহ এসব যেন দ্রুত বন্ধ করা হয়ম সেই প্রত্যাশা করছি।

পি আর প্ল্যাসিড
সম্পাদক
বিবেকবার্তা, জাপান।